কথায় আছে – আপনি যা করবেন আপনার সন্তানদের সামনে, সেগুলোই তারা শিখবে। এবং ভবিষ্যতে সেগুলোই তারা করবে। তা যতই ভাল কিংবা খারাপ কিছু হোক না কেন, সেটা তারা করবেই। প্রশ্ন আসতে পারে কেন করবে? আমার আপনি এমন প্রশ্ন করতে পারেন নিজেকে – আমি তো কারো ক্ষতি করি নি। তাহলে কেন আমার ছেলে বা মেয়ে এমন হল?

আপনার জন্যই বলছি – আপনার সন্তানের প্রাথমিক শিক্ষাটা আসে পরিবার থেকেই। যখন পরিবার থেকে আপনার সন্তান ভাল কিছু শিখতে পারে না তেমন, তখন আপনি ভাল কিছু হয়তো আশাই করতে পারেন না। মনে রাখবেন – গোবরে পদ্দফুল সবসময় কিন্তু ফোটে না!

একটি পরিবারে  যখন বাবা কিংবা মা দুজনেই নিজেদের মত ব্যস্থ থাকেন, অথচ নিজের সন্তানকে সময় দেন না, কোথায় যাচ্ছে সে কি করছে কার সাথে মিশছে; কোন খবরই রাখছেন না, তাহলে আপনাকেই বলছি। সময় থাকতেই আপনার সন্তানকে ফেরান। কোনটা ভাল আর কোনটা খারাপ সেটা বোঝান। দুঃক্ষজনক হলেও সত্য যে, আজকাল এমনটাই ঘটছে।

খুবই অস্থির এক সময় পার করছি আমরা। বাহিরে বের হলে বাসায় ফিরিবো কি না তার কোন নিশচয়তা কেউ দিতে পারে না। সন্ত্রাসী হামলায় নির্মমভাবে নিহত পরিবারদের সান্তনা দেয়ার ভাষা আমাদের জানা নেই। তাদেরকে আমরা ফিরিয়ে দিতে পারবো না কখনই। শুধু সমবেদনাই জানাতে পারি আমরা।

***মনে রাখবেন একটা কথা, ব্রেনওয়াশড কোন মানুষকে আপনি চেষ্টা করেও সঠিক পথে আনতে পারবেন না। আর তাকে সঠিক পথ চেনাতে গেলেই আপনার উপরেই নেমে আসতে পারে বিপদ। কিন্তু তাই বলে আমাদের বসে থাকলে চলবে না। আপনার আপনজনকে সঠিক পথে নিয়ে আসার দায়িত্ব কিন্তু আপনারই। আপনার সন্তান যদি ৪/৫ দিনের জন্য কাউকে কিছু না জানিয়ে উধাও হয়ে যায় তাহলে সময়ক্ষেপণ না করে পুলিশকে জানান। যতটুকু সম্ভব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন।

কোন রকম অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলুন। আসুন সুন্দর একটি দেশ গড়ি।

৭০৪জন ৭০৩জন
0 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ