ভাবছি কি ভাবা যায়; এই ভাবনাতেই দিন কেটে যায়  ;?

ভেবে ভেবে ভাবের দেখা নাই পাই; সেই ভাবনায় রাত কেটে যায়  🙁

কি ভাবা যায়  ;? গদ্য, নাকি পদ্য, নাকি গদ্য পদ্যের মায়া কাটিয়ে মুক্তগদ্য!

 

ভাবছি আমি ভাবছি যা-তা হচ্ছে না কি হচ্ছে না, এই ভাবনায় তাল পাকে না  ^:^

নীল আকাশের নীলাঞ্জনা; শুন্য হতে ভ্রম কাটে না, রুপকথাতে ছন্দ আসে না

এই ভাবনার লীলা কাটে না, ভাবনাগুলো তাজা থাকে না!  ;(

 

ভাবছি কি ভাবা যায়!

এক পলকে কি লেখা যায়  ;?

দুর্গম বন বন্ধুর পথ, উদার মরুর চরাচর

ঘাস ফড়িঙের শিশির স্নান,

চন্দ্রিমাতে কুয়াশা ঝড়!  ^:^

 

মুক্ত গোধূলী কেটেছে কবে ভুলেছি ভাবনার মাঝে। সাঁঝ যায় বাতি জ্বলে কিন্তু ভাবনার বারুদে ধোঁয়াও আসে না। ধূলো মাখা ঝাড়বাতিগুলো নিভু নিভু করে জ্বলতে থাকলেও রোজ সকালে নিভে যায় কেন! ভাবনার কি তবে শুন্যালয় আছে যেখানে ভ্রম আছে মায়া জড়িয়ে রুপকথার লীলাখেলার মায়া জড়িয়ে অতি নীলে ডুবে থাকা নীরব তারাদের মাঝে!

আচ্ছা নীলাঞ্জনা, ভাবনা কাকে বলে জানো! যে ভাবনায় ডুবে গেলে ভাবনার অন্তহীন পথের জোছনা ছোঁয়া যাবে দিবালোকে!

নীলাঞ্জনা, যেখানে থরে থরে সাজানো ভাব সাঁতার কাটতে থাকে সমুদ্রের নীল নিয়ে সবুজ ঘাসে; জানো কোথায় এমন ভাবনা!

নীলাঞ্জনা আমি এমন ভাবনার দেখা কেন পাই না!

 

নিকোটিনের পোড়ানো কাগুজে আগুন নিভে শেষ হয়ে যায়, চুলোয় থাকা শেষ ক’টি চালডালের কণা চিৎকার করে বলতে থাকে-

‘পৃথিবীর শেষ ক’টি অন্ন আজ তোমার মৃত্যুর অপেক্ষায়

তুমি এসো অনহারে ক্লিষ্ট পথিক! এসো তুমি,

গ্রহণ করো আমায় বিষের অমৃত ডালা উপচে।

নীরবে চেয়ে থেকে নিজেকে ক্ষয়ে সয়ে বেঁচে থাকার মানে নেই,

এসো হে, গ্রহণ করো আমায়। তোমায় নিয়ে আমি শেষ প্রাণের মতো ধ্বংস হই’

 

ভোর এসেছে। কোথাও রাগ ভৈরবের আহির ধূন বেজে উঠেছে-স্বাগত রাগ!

আমার ভাবনার রাগমোচন কি হবে না?

 

 

 

৮২০জন ৮২০জন
0 Shares

১৪৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ