জোনাকিরা

মেহেরী তাজ ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ০৯:২০:১৪অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৪৩ মন্তব্য

= কেমন আছো মেয়ে?

// ভালো! 

= কতটা ভালো? বলো তো শুনি!?

// সে তোমার জেনে কাজ নেই!

= আহা রেগে যাচ্ছো কেনো?!

// না রেগে যাই নি! কেনো এলে বলো তো?

= আমি খুব বুঝতে পাড়ছি রেগে যাচ্ছো।

// হুম তাই তো! অন্যকেউ বুঝুক না বুঝুক তুমি তো সব বোঝ….!

= আচ্ছা বাবা থাক ওসব! আমি এসেছি শুধু কেমন আছো তাই জানতে! জানা হলেই চলে যাবো প্রমিজ!

// তুমি যে কতখানি যাবার পাত্র সে আমি খুব জানি! তবুও বলছি ভালো আছি!  বেশ ভালো আছি!

= উহু এটা কোন উত্তর হলো না! কতটা ভালো আছো তার একটা পরিমাপ বলো!

// উম্মম্মম্ম পুরো পৃথিবীতে যতটা ভালো আছে তার মধ্যে যতটা “ভালো থাকা” আমার জন্য বরাদ্দ তার পুরটাই আছি আমি!

= হুহ এটার নাম বুঝি পরিমাপ বলো তুমি? হলো না! আর একবার চেষ্টা কর!

// বাড়িতে স্যালাইন বানাতে কতটা লবন লাগে তা জানো তুমি? ঠিক ততটা ভালো আছি আমি!

= তারমানে মাত্র একচিমটি? মাত্র একচিমটি ভালো আছো তুমি?

// হুম! এটাই বা কজনা থাকে বলো?

= আচ্ছা আচ্ছা ঠিক আছে! সেই একচিমটি মন ভালোর সাথে আরো দুচিমটি ভালো থাকা যোগ করতে তোমার কি চাই বলো??  ;?

// যদি বলি “চাঁদ”?

= ওরে বাবা এতো টা রেগে আছো? “ব্রহ্মাণ্ড” ধ্বংসের ছক কষেছো? ওতে আবার আমার নাম জুড়ে দিতে চাইছো? কেনো গো?

// যত্তসব বাজে কথা!

= আচ্ছা কিভাবে, সে বলছি শোন! ঐ যে সূর্য, চাঁদ,পৃথিবী কে যেনো কার চারপাশে ঘুরে কি যেনো একটা ব্যালেন্স করে না!? আমি যদি চাঁদকে আনি তবে ওর কাজ কে করে দেবে বলো?

// জানি জানি খুব জানি এমন কিছু একটাই যে বলবে আমি আগেই জানি!  পাজি, শয়তান একটা!

= আহা! তোমাকে কতবার বলেছি “রাগ” স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর!

// দূর হও চোখের সামনে থেকে!

= আর একটা  চাওয়া বলো, সেটা আমায় দ্বিতীয় সুযোগ দেওয়াও বলতে পারো! 

// উম্মম তাহলে ” সেকেন্ড টাইটানিক “।

= আচ্ছা সে না হয় বুঝলাম! কিন্তু সেটা বড্ডবেশি ফিল্মি হয়ে গেলো না? সাথে আবার জাহাজডুবি হয়ে মরার ভয় তো রয়েছেই!

// তোমায় দিয়ে কিচ্ছু হবে না! নিজ দায়িত্বে সামনে থেকে যাবে?  না  ঝেটিয়ে বিদেয়…..

= কিন্তু আমি যদি বলি একটা ছোট্ট পঙ্খিরাজ, একটা “অধরা চাঁদ” আর শতশত তারা দেবো।  তবে??

//  একটা চাঁদ চাইলাম বলে আমি হয়ে গেলাম বিধ্বংসী।  আর তুমি চাঁদ, তারা সব আনবে তাতে বুঝি কিচ্ছু হবে না?

= না কিচ্ছু হবে না! তুমি চাইলেই তারাগুলো ছুয়ে দেখতে পারবে! তোমার হাতেই ওরা জ্বলবে নিভবে! চাই কিনা বলো!

// হ্যা চাই! কিন্তু তা কি করে সম্ভব?

= কোন এক চাঁদনী রাতে গাছে ঘেরা এক ছোট্ট পুকুরের মাঝখানে নৌকতে করে তুমি! তোমার ঠিক ডান পাশে পায়ের কাছের পানিতে বড় একটা চাঁদ! কিন্তু সাবধান আমি আগেই বলেছি ওটার নাম “অধরা চাঁদ”। ধরতে গেলেই পালিয়ে যাবে! আর তোমার চারপাশে শতশত “তারা”….!

// কিসের কথা বলছো বলতো?

= পাগলী সেও বুঝলে না!  “জোনাকি পোকা “।

// মানে?

= “তারারা” যেমন জ্বলে, নেভে। জোনাকি ও তো জ্বলে নেভে! তবে..!

// তবে……!?

=সামান্য একটা তফাৎ তো আছে!

// কি সেটা?

= তারার মৃত্যু হলে একটা ব্ল্যাকহোল তৈরি হয় কিন্তু জোনাকির মৃত্যুতে তা হয় না! আর “তারা” ধরা না গেলেও “জোনাকি” ঠিক ধরা যায়।  🙂

// এমন জায়গা আছে কি কোথাও?

= হ্যা আছে আমি দেখেছি! একটা রাত ঠিক করে আমায় ডেকো।  আমি না হয় তোমার পঙ্খিরাজের মাঝিই হবো! 🙂

// আচ্ছা ভেবে বলবো। (তাই যদি হয় তবে সেটা হবে আমার জীবনের সবচেয়ে সুন্দর গিফট! )

= দুচিমটি মন ভালো হয়েছে কি?

// হুম হয়েছে!  ^:^

= যাক বাবা বাঁচা গেলো!??

// কিছু কি বললে?

= না না ত!  ভালো থেকো!

৮৯৬জন ৮৯৬জন
0 Shares

৪৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ