নরকের কীট

সীমান্ত সৈকত ৪ জুন ২০১৫, বৃহস্পতিবার, ০১:১১:০৪পূর্বাহ্ন কবিতা, সমসাময়িক ৮ মন্তব্য

ঝরে পড়ছে বাতাসের আহ্বানে
জীবিত বৃক্ষের প্রাণহীন প্রতিটি পাতা ।

দেখছি আমি,
অপেক্ষায় আছি প্রতিটি চোখের পলক কে সাক্ষী করে
আবার দেখবো সবুজ পাতার বাহার,
দেখবো জীবনের স্পন্দন ।

তুচ্ছ করে জীবনের পদ্ম-প্রদীপ
হারাচ্ছে যারা অন্ধকারে,
হচ্ছে বলি পুড়ে হীন পশুদের স্বার্থ-বাদের দাবানলে ।

কভু দেখবে-কি তারা সজীব জীবনের দ্যুতি ?
হবে কি আবার পদংকলন তাদের পবিত্র এই মৃত্তিকার বুকে ?

আত্মার মুক্তি হবে-কি তাদের ?
সদ্য জীবনের রাজ্যে পা রাখা সেই সব মৌ অন্বেষী,
খুঁজতে হয় যাদের আজ গলিত লাশের ভিড়ে ।

শত আরাধনার এই জীবন প্রদীপ,
নিভে গেছে আজ,
হারিয়েছে আলোক শিখা,
মাংসাশী হিংস্র পশুদের চাপা গর্জনে ।

কে দিয়েছে তাদের অধিকার
থামিয়ে দিতে এই আলোর মিছিল ?

কে জ্বালাবে ঐ সব গৃহে আলোর প্রদীপ,
যাতে অন্ধকার নয়
শোকের বার্তাই গ্রাস করেছে সবার মন।

ক্ষমা করবোনা ঐ মানুষ নামের পশুদের কভু,
ভুল করেও তার প্রতি বাড়াবেন কেউ দয়ার হাত।

বলবে সবাই কান্না ভরা ভারাক্রান্ত মনে।

তুই অভিশপ্ত,
ক্ষমা নেই তোর।

তোর মাজেই ধ্বংসের বাস,
তুই নরকের কীট ।।

৪৩১জন ৪৩১জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ