হিপনোটক্সিক ইরেকটাস

আমি তাই যা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না ,
আমি সব জানি কারন আমি কিছুই জানি না ।
নিজের অস্তিত্বকে নিজের মাঝেই খুজে ফিরি অবিরত ....

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ১০ বছর ২ মাস ৯ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৭টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ৩৬টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ৮২টি
না লিখতে লিখতে লেখার ক্ষমতাটা বোধহয় হারিয়েই ফেলেছি। তবু কেনো জানি অদৃশ্য একটা টান আজ এখানে আবার নিয়ে আসলো আমাকে। আসতে যখন হবে কিছু একটা নিয়েই তো আসতে হবে। তাই এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা - বর্ণের পর বর্ণ , শব্দের পিঠে শব্দ সাজে পিচ ঢালা পথ যেভাবে মিলে দূর নিলীমায় । এথায় সেথায় ছড়ানো ছিটানো সে [ বিস্তারিত ]

বিদায়

হিপনোটক্সিক ইরেকটাস ২৪ এপ্রিল ২০১৪, বৃহস্পতিবার, ১০:৫৩:২৩পূর্বাহ্ন বিবিধ ১৩ মন্তব্য
যে লেখার শুরুটাই হয় একটা দীর্ঘশ্বাস দিয়ে,  জানি না সে লেখার শেষটা কেমন হওয়া উচিত।  শুরুর আগেই শেষের কথা আঁওড়াচ্ছি কারন আজ তো শুধুই শেষের মেলা। প্রথমেই লিখার মূখ্য উদ্দেশ্য বলে দেয়া উচিত না হলে পাঠকের ধৈর্য্যচূত্যি ঘটাটাই অবশ্যম্ভাবী। আজ থেকে ফেসবুক,  ব্লগ কিংবা কারো চিন্তা চেতনায় থাকবে না " হিপনোটক্সিক ইরেকটাস " নামক নিকটা। [ বিস্তারিত ]
কাকেরা তাদের কা কা বন্ধ করে দিয়েছে সেই কবেই।  একে একে ঘর্মাক্ত দেহে বাসায় ফিরেছে সব পোশাকশিল্পীও।  সোডিয়াম বাতির নীচে লীলাখেলা রত আলো আঁধারির আবক্ষ মূর্তিগুলোও  ক্ষ্রান্ত কিংবা পরিতৃপ্ত হয়ে গেছে।  মাঝে মাঝে রাস্তার স্টার্নাম বরারর ছুটে চলে কিছু মাতাল গাড়ি,  যেনো আজ ওদের ফর্মূলা ওয়ানের নেশায় পেয়েছে। রাত ১ টা।  নিভে গেছে সব এপার্টমেন্টের [ বিস্তারিত ]
আজ আমি নিজের অস্তিত্ব নিয়ে সন্দিহান।  অনেক ক্ষোভ,  হতাশা আর বুক ভরা ঘৃণা নিয়ে লিখতে বসেছি আজ। হৃদয়ের সব আবেগ আজ ঘৃণায় পরিনত হতে চলেছে।  আততায়ী  হবার নেশায় পেয়ে বসেছে আমাকে। আমি আজ আমার স্বজাতি মানে চিকিৎসকদের না উগরানো হতাশাগুলোকে হিংস্রতায় রূপ দেয়ার ভয়ে ভীত। একেবারে শুরু থেকে শুরু করি। আজকে সকালে ২য় বর্ষ এর  [ বিস্তারিত ]

কদাচিৎ কাতরতা

হিপনোটক্সিক ইরেকটাস ৯ এপ্রিল ২০১৪, বুধবার, ০৯:৩১:৪৪পূর্বাহ্ন বিবিধ ৬ মন্তব্য
জীবনের প্রথম স্কুল থেকে ক্লাস করে বাসায় ফিরল সায়েম ৷ বাসায় ফিরতেই মায়ের প্রশ্ন : -বাবা আজ স্কুল কেমন লাগলো ? -অনেক ভালো মা ৷ -সবচেয়ে ভালো কি লাগছে বাবা ? -ছুটির ঘন্টা ৷ এটাই হয়তোবা বাস্তবতা ৷ হাঁপ ছেড়ে বাচার মাঝেই মানব সন্তান খুঁজে ফিরে তার জীবনের সার্থকতা। আর সময়ের সাথে সাথে খারাপ লাগাগুলোও [ বিস্তারিত ]

ভালোবাসার শেষ যেখানে….

হিপনোটক্সিক ইরেকটাস ৬ এপ্রিল ২০১৪, রবিবার, ০৯:৩০:৫৭অপরাহ্ন বিবিধ ৬ মন্তব্য
পা দুটো তার কখনো কখনো পাশের পা দুটোর দিকে বেঁকে যাচ্ছে। দিগভ্রান্ত হয়ে হাটছে বলে বেশির ভাগ সময়ই মনটা আটকে যাচ্ছে ঘড়ির কাটার বিপরীতে । বিপরীত লিঙ্গের পদযুগলের মৃদু সংঘর্ষে সম্বিত ফিরে পাওয়া মাত্রই আনাড়ি অভিনেতার মতো পদযুগলদ্বয়ের মালিকেরা পদযুগলদ্বয়কে বিপরীতদিকে চালাতে ব্যাস্ত হয়ে পড়ে। ব্যাবধান তো বাড়েই সেটাকে কমাবার জন্য। সে ধর্ম মেনেই মৃদু [ বিস্তারিত ]
-ভাইয়া আপনাকে না কাল শেভ করে আসতে বললাম ? -তো কি হইছে? করব না আমি শেভ ৷ -আচ্ছা ভাইয়া, আপনি কোন ব্রান্ডের সিগারেট খান? আপনি যে সিগারেট খান আন্টি জানে ? অনিক ভাবছে সোহানা বুঝি তাকে ব্ল্যাকমেইল করছে, এইতো সেদিন মেয়েটা ঠিকমত কথাও বলতে পারতোনা , আজ সে কলেজে পড়ছে ৷ অনিককে অনিত ভাইয়া ডাকত, [ বিস্তারিত ]

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ