দিন চলে গেলো

রিতু জাহান ১৫ ডিসেম্বর ২০১৫, মঙ্গলবার, ০১:০৬:৩২অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৪ মন্তব্য

নারী তুমি,অদেখা অনেক রূপ তোমার।কখনও বলো ত্যাগেই তোমার সুখ বড়! তবে জীবনের মাঝপথে কেন এই দীর্ঘ নিঃশ্বাস।বিয়ে তোমার যদি হয় ষোল সতেরো বছরে।মাঝপথেই বা কেন বলছো, এই জীবনকে  শেষ সময়ই ও তো বলতে পারো।যতো সখ ছিলো তোমার,জীবনের প্রথম বেলাতেই দিতে হয়েছে জলাঞ্জলি।কেন, তা তো তুমিই ভালো জান।

বিয়ের পরে স্বামীর হাত ধরে চলে এলে।চোখ বন্ধ করে,আজীবন বিশ্বাসের হাত ধরে।স্বামী তোমার সুখে রাখবে বড়ই। হ্যাঁ,সুখে তো তুমি আছই।সুন্দর পদমর্যদার চাকুরি।থাকা খাওয়া,পোষাক কি নেই ওই সংসারে।কিন্তু তুমি ভালো আছ তো নারী? স্বামী বললো প্রথম দিনেই তোমায় অনেকগুলো ভাইবোন কিন্তু তার।মানুষ করতে হবে সব তোমায়।তখন যেন বয়স কতো তোমার? ষোল না সতেরো? সংসার মানে বোঝো তুমি?কতজনের জন্য কতটুকু চাল দিতে হবে জানো তুমি?তবুও তোমায় এদের সবাইকে মানুষ করতে হবে।হোক না এরা তোমার বয়সে বড়।এদের দু চারটা কাপড়ই না হয় ধুয়ে দিলে,প্লেট ধুতে সমস্যাই বা কি বলো?তোমার পরার কাপড়টা না হয় দিলেই বোন সমান ননদটি কে।তুমি বউ সখ কি আর করবে বলো?যতোই তারা তোমার বয়সে বড়।বাবার বাড়ির গয়নাটা দাও না বোন সমান ননদটি কে।পার হোক।যাক না ও শশুরবাড়ি।চাকুরিজীবী ননদ হলেও,থাক না ওর টাকাটা জমা।ওর যে হক আছে তোমার আমার প্রতি।

হক!কোন হক!এই প্রশ্ন করতে করতে তুমিও নারী সময় পার করলে।দায়িত্ব সব করলে ঠিকই। মনের কোণায় জমা রইলো ক্ষোভ অনেক।সখ যা ছিলো তোমার সিন্দুকে ঢুকে গেলো।এখন সন্তান মানুষ করতে করতে দিন চলে গেলো অজানায়।খুঁজে কি পেলে সব?
তুমি নারী ঐ কদম গাছ।গাছে থাকলে মৌ মৌ গন্ধে সবার মন মাতাল করো।সবুজের মাঝে হালকা কমলার যে সৌন্দর্য তুমি ছড়াও,তা নিচে পরলেই পঁচে বিশ্রি গন্ধে সবার বিরক্তির কারণ হও।নারী তুমি কর্তব্য করতে না পারলে সবার কাছে খারাপ হও।আর কর্তব্য করলে নিজেই নিজের কাছে বিরক্তি প্রকাশ করো।

নারী দিন তোমার চলে গেলো এভাবেই।অপেক্ষা তোমার আর একটি নতুন প্রজন্মের জন্য।

৫২৮জন ৫২২জন
0 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ