অবচেতন

খাদিজাতুল কুবরা ১১ মার্চ ২০২৪, সোমবার, ১২:৩৭:৪২পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩ মন্তব্য

অবচেতন মন,

একসময় ঠিকই জেনে ফেলে এবং মেনে নেয়,

তার জন্য এ পৃথিবীর বরাদ্দ সীমিত।

আক্ষরিক অনুবাদ যাই হোক ;

পরিভাষা অনুসারে সে জীবনের সমীকরণ মেলানোর চেষ্টা করেনা।

যাপনের সংজ্ঞা নিরূপণে বৃথাই সময়ের অপচয় রোধ করতে সে মরিয়া হয়ে কায়িকশ্রমের উপকারিতা আওড়ায়।

জেদি, একরোখা, আবেগপ্রবণ যারা, তারা বলবে, “এ হচ্ছে বিধবার শান্তনা “।

তখন ও মন নিশ্চুপ, তর্ক করার ইচ্ছে কবেই মরে গেছে তার!

দিন শেষে এত আলাপ অপালাপের ভীড়ে ঠিকই সে টের পায়, তার নিজের কোনো গল্প ছিলোনা আজকেও; আমাদের গল্প খোঁজাতো একবারেই বিলাসিতা!

এমন নির্মোহ হওয়ার জন্য ও অনেকের অনেক অভিযোগ।

সূর্যের মত জ্বলতে নিভতে দারুন লাগে তার!

ব্যাথারা কথা বলে,

সে শোনে,

কার কত দোষ ত্রুটি গুনতে ইচ্ছে হয়না।

এগুলো অবচেতনের কাছে জমা রাখা থাকে,

আরো আছে কত নাম না জানা ভাষার অনুবাদ!

প্রাঞ্জলতার অভাবে অপূর্ণই থেকে যায় সেসব বোধ।

মানুষটা কিন্তু মোটাদাগে অমায়িক,

মেদবহুল বন্ধুবৎসল!

ভেতরের অবচেতেনর দণ্ড দিয়েছে সে আজীবন কয়েদ।

২৫৩জন ২২১জন
0 Shares

৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ