বেওয়ারিশ!

মারজানা ফেরদৌস রুবা ১৯ জুলাই ২০১৬, মঙ্গলবার, ০৯:৪৯:৪৮পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি, সমসাময়িক ২০ মন্তব্য

FB_IMG_1467528138104
বেওয়ারিশ! পিতামাতা, পরিবার পরিজন থাকার পরও আজ তোমরা বেওয়ারিশ!!

সমাজ থেকে শুরু করে তোমাদের জন্মদাতা পিতামাতাও তোমাদের ঘৃণা করে। তোমাদের কারো জানাজায় পর্যন্ত লোক শরীক হয় না! এমনকি তোমাদের জন্মদাতা পিতামাতাও না! চেয়ে দেখো তোমরা, পৃথিবী থেকে কতোটা ঘৃণা কুড়িয়ে নিয়ে যাচ্ছো পরপারে।

আজ ১৯ জুলাই। ঠিক এক সপ্তাহ আগে, ১৩ জুলাই পত্রিকা মারফত জেনেছিলাম আর এক সপ্তাহ অপেক্ষা করে যদি লাশ পরিবার থেকে গ্রহণ করা না হয়, তাহলে গুলশান ট্র্যাজেডির আততায়ীদের লাশগুলো আঞ্জুমানে মফিদুল’এর হাতে হস্তান্তর করা হবে। বার্তাটি ছিলো ১২ জুলাইয়ের, পত্রিকায় এসেছে ১৩ জুলাই। এ কেমন মানবজীবন ছিলো তোমাদের?
দুর্ভাগ্যজনকভাবে কেউ হয়তো বেওয়ারিশ হয়ে যায় কিন্তু তোমরা বেওয়ারিশ হতে যাচ্ছো ঘৃণা কুড়িয়ে !!!

১লা জুলাই ঘটনাটি ঘটেছিলো। টানা ১৯ দিন যাবত লাশগুলো মর্গে পড়ে আছে। মা-বাবা অস্বীকৃতি জানিয়েছেন, তারা লাশ নিবেন না। এরকম মানবতার হন্তারক কুলাঙ্গারদের তারা গ্রহণ করবেন না। সারা পৃথিবীজুড়ে তোমাদের প্রতি মানুষের সীমাহীন ক্ষোভ। মরণের পরেও সারা পৃথিবীর মানুষ তোমাদের থুঃথুঃ ছিটিয়ে যাচ্ছে।

কেউ কেউ যদিও আহা উহু করেছেন, সেটা নিতান্তই মানবিক কারণে। তাদের প্রশ্ন, কিসের লোভে পড়ে এমন সুদর্শন এবং বিত্ত বৈভবে বেড়ে উঠা বাচ্চা ছেলেগুলো ও পথে পা বাড়ালো! নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে দিলো! ছেলেগুলো কি এখন জানতে পারছে, এ দুনিয়ায় এমন একটি মানুষও নেই যে তাদের জন্য চোখের পানি ফেলছে?

তোমরা কি জানো? দুনিয়ার মানুষের কাছে যারা পরিত্যক্ত, বিধাতাও তাকে ক্ষমা করেন না।

মানবজীবনের বৈশিষ্ট্য তো হওয়া উচিৎ “এমন জীবন তুমি করিবে গঠণ, মরিলে হাসিবে তুমি কাঁদিবে ভুবন।”

কিন্তু তোমাদের মরণের পরে সারা পৃথিবীর লোককেবল থুঃথুঃ ছিটিয়ে যাচ্ছে!!!

৫৩২জন ৫৩২জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ