কোনো একদিন

খাদিজাতুল কুবরা ১৮ এপ্রিল ২০২৩, মঙ্গলবার, ১২:১৭:৩৬পূর্বাহ্ন চিঠি ৩ মন্তব্য

প্রিয় অনিমেষ!

কেমন আছ?

সব সময় তোমাকে ভালোবাসি তার সবিস্তর বর্ণনা করাই থাকে চিঠির মুল বক্তব্য। কিন্তু আজ আমি আমাকে ভালোবাসার সামান্য চেষ্টার কথা তোমাকে লিখব। তুমি আবার আকাশ পাতাল ভাবতে বসোনা। অবশ্য তেমন সম্ভাবনা ও সম্ভবত নেই।

যাই হোক, তুমি জেনে খুশি হবে যে, নিজেকে আমি মুক্ত করে দেবোই দেব কোনো একদিন।

তোমাকে নয় কেনো?তুমি যে অতিথি,আর অতিথি মূলত পরিযায়ী বুনো । বুঝলে? দ্বিধা-দ্বন্দের দোলাচলে আমি ক্লান্ত! সন্দেহ বাতিক ও বলতে পার। সরল মনে সন্দেহের বীজ পুঁতে রেখেছে তোমারই জ্ঞাতি ভাই। কি আর করা! যেমন পূর্বসূরির প্রায়শ্চিত্ত করছে হিরোশিমা নাগাসাকির উত্তরসূরীরা । আমি ও আত্ম প্রেমে মগ্ন হব, কড়া পাহারা বসাব অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধে। আর আভ্যন্তরীণ অভিভাসীকে নিঃশর্ত ক্ষমা করে মুক্তি নিব। জানোইতো আমি যুদ্ধ ভয় পাই, বরাবরই শান্তির পথে হাঁটি।নির্ভেজাল একাকীত্বে সুখী হতে না পারলেও হয়ত স্বস্তি পাব। আমার একলা সকাল, একলা বিকেল, আমার রোদ্রদাহ একলা, একলা নিঝুম দুপুর! আমার সন্ধ্যা প্রদীপহীন, মধ্যরাতের জোছনা ও ম্লান!চুপচাপ থাকতে থাকতে আমি না বোবা হয়ে যাই! অথচ আমার ভেতরে অসহ্য কোলাহল, আমি প্রিয় কন্ঠস্বর পদশব্দ সব শুনি, কিন্তু এতই নীচু স্বরে ফিসফাস করে যে বুঝতে পারিনা কিছুই! এই হানাবাড়ির রহস্য আমাকে পাগল করে দেবে!তার আগেই, নিজেকে আমি মুক্ত করে দেবোই দেব,কোনো একদিন। কেনো এই স্বেচ্ছা নির্বাসন? ঐ যে আমি আপন ভোলা! ভারসাম্য রেখে রাঁধতে পারিনা পাঁচন। মনে রাখতে পারিনা রাজনীতি “লবণ স্বাদমত, চিনি কম “।

 

৪২৭জন ৩২৩জন
0 Shares

৩টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ