রহস্যঘেরা সোনাবিকেলের সবুজ বনানী ভালোবাসি,
রঙিন প্রজাপতির বিরামহীন ওড়াউড়ি, ভ্রমর গুঞ্জরণের শান্ত ফুল,
হেমন্তের বিকেলের নরম আলোয় স্পন্দমান সবুজ ঘাস,
ঘোর অন্ধকারে জ্বলে থাকা স্বপ্নে আঁকা স্বপ্নচোখ ও
প্রাণপ্রিয় কবিতাদের বড় বেশি ভালোবাসি;
নচ্ছার ফাঁকিবাজ কুঁড়ে হতচ্ছাড়া কবি-ফবিদের একটুও না।

অশান্ত সমুদ্রে বয়ে যাওয়া শান্ত নদী, কচুপাতার শিশির বিন্দু, শিশুর রং ঢং, সাদাসিধে বেঁচে থাকা ভালোবাসি, জীবন ও জীবিকার সীমান্তে ঝুলে থাকা এপার ওপারের ভেদ রেখা, সুখপাখিদের বাসাটাসা, পেয়ারের এয়ারদোস্তদের হৈহল্লা, ভাগে বিড়ি ফোঁকা, বৃষ্টির আলিশান ফোঁটা, উন্মত্ত ষাঁড়ের ছুটে আশা, শিশু হারা বাঘিনীর ক্রন্দন,তীব্র বুনো বৃষ্টি, ভালোবাসি কবিতায় জ্যান্ত বন্দি; ভালোবাসি ভালোবাসি,
বাতাসা খেকো নরকের কীট কবিদের দেখলে শুধুই হাসি;

মগজকে রেখেছি বাটখারার জিম্মায়, দেখেছি দুষ্ট কবিরা ঝিলমিল বিলাসী প্রাসাদে
ফাঁদ পেতে ফাঁদে ফেলে নিপুন হাতে, মগজ ধোলাই বাবদ খাজনা তোলে,
গভীর তৃষ্ণায় মুমূর্ষুকে প্রাণজল দেয়ার ভাণ করে, ঘাগু শিকারীর বেসে!
ধড়িবাজ কবিদের মূল শুদ্ধ উৎপাটনে, চিৎপটাং শব্দ উপবাসে,
বিস্তৃত হাসি হাসি দিনেদুপুরে,

ছোঁয়াচে কবিতা, সহসাই স্পর্শহীন,
অনন্তকাল স্পর্শের লড়াইয়ে ব্যত্যয়হীন;
দূরতম ছায়াপথের রাক্ষসবাড়ীটিতেও তোমাকে চাই,
নক্ষত্রের আকাশবাড়ীতেও চা্‌ই, তোমাকেই ভালোবাসি,
খুনসুটি মেখে মেখে এখনও সেই ই কবিতার হাসিটি হাসি;

৪৩৬জন ৪৩৬জন
0 Shares

৩১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ