ভালোবাসার তালা

জিসান শা ইকরাম ৩ জুন ২০১৬, শুক্রবার, ১০:৩৭:০৭পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি, ভ্রমণ ৩৬ মন্তব্য
কত যতনে লিখছে ভালোবাসার কথা তালার উপরে
কত যতনে লিখছে ভালোবাসার কথা তালার উপরে

মেয়েটি বললো- আমাদের ভালোবাসা তালা দিয়ে আঁটকে রাখবো, আর তালার চাবি থাকবে আমার কাছে।
আমি- চাবি শুধু তোমার কাছে থাকবে কেন?
মেয়েটি- ভালবাসা দরজা খুলে চলে যেতে না পারে। আমাদের বিয়ের পরে সে যেন চলে যেতে না পারে। ভালোবাসা নিয়ন্ত্রণ করবো কেবল আমিই।
আমি- তুমি যদি চলে যাও? চাবি যদি হারিয়ে ফেলো?
মেয়েটি- আমি চলে যাবো না, আর চাবি কেন হারাবে? হারাতে দেবো না।
আমি- এতটা নিশ্চিত তুমি?
মেয়েটি- হ্যাঁ

তালা ঝুলিয়ে দেয়ার পুর্বে শেষবারের মত ছবি তুলে রাখা
তালা ঝুলিয়ে দেয়ার পুর্বে শেষবারের মত ছবি তুলে রাখা

একটি মেয়ের ভালোবাসা তালা দিয়ে আঁটকে রাখার দৃশ্যমান প্রতীকী কর্মকাণ্ড একটি। কি পরিমান তালা ঝুলে আছে এখানে তা বলা কঠিন। প্রতিদিন শতশত তালা ঝুলছে এখানে। যারা তালা দিচ্ছে তার প্রায় ৯৫% মেয়ে। মেয়েরা ভালোবাসায় অনেক বেশী নিবেদিত  এবং আন্তরিক ছেলেদের তুলনায় এটি এই তালা ঝুলানোতে কি প্রমাণ হয় ?

ক্রিসমাস গাছ এর মত ভালোবাসার তালা গাছ
ক্রিসমাস গাছ এর মত ভালোবাসার তালা গাছ

দূর থেকে ভেবেছিলাম বিভিন্ন রঙের কিছু দিয়ে কৃত্রিম গাছ জাতীয় কিছু একটা। এমন গাছ আছে পাশাপাশি চারটি। কাছে গিয়ে দেখতে তো চোখ ইয়া বড়। হাজার হাজার তালা। একটির সাথে আর একটি তালা দেয়া। তালা ফল যেন। ফটো সেশন করলাম বিভিন্ন ভঙ্গিতে। একজন কোরীয়ান বললো এখানে আর কি দেখো টাওয়ারের অন্য দিকে সিড়ি বেয়ে উপরে উঠে দেখো।

ভালোবাসার তালা লাগাতে, দেখার জন্য এই সিড়ি দিয়ে উপরে উঠলাম
ভালোবাসার তালা লাগাতে, দেখার জন্য এই সিড়ি দিয়ে উপরে উঠলাম

উপরে উঠে তো ভিমরি খাওয়ার মত অবস্থা। এ কোথায় আসলাম? রেলিং এর রডের সাথে প্রথমে কেউ একটি তালা ঝুলিয়েছে। এরপর তালার উপর তালা। কত টন তালা হবে এখানে? হুজুগে লোক শুধু বাংলাদেশেই নেই, পৃথিবীর সব দেশেই আছে। মেলবোর্নে দেখেছি একটি ব্রীজের রেলিং এ এমন তালা ঝুলানো। কিন্তু অন্য সব দেশের ভালোবাসার তালা আটকানো কোরিয়দের কাছে পরাজিত হবে নিশ্চিত।

এমন তালা ঝুলানো চত্বর আছে তিনটি। কি পরিমান তালা ঝুলে আছে ভাবা যায়!
এমন তালা ঝুলানো চত্বর আছে তিনটি। কি পরিমান তালা ঝুলে আছে ভাবা যায়!
এত হাজারো মানুষের ভালোবাসা যেখানে আঁটকে আছে, সেখানে আমি না থাকলে কেমন হয়?
এত হাজারো মানুষের ভালোবাসা যেখানে আঁটকে আছে, সেখানে আমি না থাকলে কেমন হয়?
সবার ভালোবাসার স্পর্শ নিতে চাই, সবাইকে ভালোবাসা বিলাতে চাই।
সবার ভালোবাসার স্পর্শ নিতে চাই, সবাইকে ভালোবাসা বিলাতে চাই।

 

দক্ষিন কোরিয়ার ‘শিউল টাওয়ার’ এর ভালোবাসার তালার কাহিনী এটি। প্রতিদিন ভালোবাসার তালা আটকানোর জন্য মানুষ আসে এখানে। বিশ্বাস হোক বা ফান হোক মানুষের একে অপরের প্রতি ভালোবাসা অটুট থাকুক এই কামনা করি। ভালোবাসা আসলেই অনেক কিউট।

শিউল টাওয়ার
দক্ষিন কোরিয়া

১৩৪৭জন ১৩৫১জন
0 Shares

৩৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ