বাঁধন

জিসান শা ইকরাম ১৫ আগস্ট ২০১৬, সোমবার, ০১:০০:১০পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৪৮ মন্তব্য

IMG_20160812_171809 [640x480]
বালিয়াড়িতে অসহায় আত্মসমর্পন নাও হতে পারে। সমুদ্র, নীল জল, সমুদ্র তীর, বালু তট,
সুদূরে সমুদ্রকে ছুঁয়ে থাকা নীল আকাশ, ভাসমান জলযান, বিচ্ছিন্ন নয় একে অপরের।
আকাশের চুম্বনহীন সমুদ্র কল্পলোকের  দৃশ্যপটে অস্তিত্বহীন।
নীল যে কষ্টের রঙ এমন ভাবারও কোন কারণ নেই।
সমুদ্রের নীল জলে মানুষের সাঁতার, উচ্ছ্বাস, আনন্দ কেন! তবে যদি নীল হয় কষ্টের রঙ?
নীল জলরাশি পূর্ণ সমুদ্র তীরে বিষণ্ণ হয়ে থাকা মানুষের দেখা মেলে না।

খুড়ে খুড়ে দেখি কতটা ভালবাসা, মায়ায় জড়িয়ে থাকে মানুষ।
ভালোবাসাহীন মায়ার সুতায় আঁটকে পড়ে না কেউ,
ভালবাসায় আত্মসমর্পন, নিজেকে সম্পূর্ণ বিলীন করে দেয়া প্রেমাস্পদের মাঝে,
অস্তিত্বহীন অস্তিত্বই তখন অপার শান্তি।

একটি জলযান আঁটকে আছে বালির মাঝে, বালি তাকে যেতে দিচ্ছে না। ধীরে ধীরে প্রতিদিন বালিতে ডুবে যাচ্ছে সে।
জলে ডোবা আর বালিতে ডোবা আলাদা কিছু। জলে ডোবা আমাদেরকে ভাবায় না। কারণ আমাদের চোখের দৃষ্টি সেখানে পৌছে না। বালিতে ধীরে ধীরে ডুবে যাওয়া আমাদেরকে ভাবায়। দৃষ্টি এখানে মুখ্য! বালি খুড়ে দেখা যাক কোন সে কারণ আঁটকে থাকার? অচল জলযান পরিত্যাক্ত কেন? মালিক নেই এর? সমুদ্রে ভেসে এসে বেওয়ারিশ হয়ে কবর নিচ্ছে নিজের? আমরা কষ্টকে খুড়ে খুড়ে আনবো না। আমরা ভালবাসা, আনন্দকে খুঁজে আনবো।

প্রতিদিনের সমুদ্রে  ভেসে ভেসে আনন্দকে বুকে তুলে নেয় রুপালি মাছ,
তীরে এসে বালির বুকে আশ্রয়ে নিশ্চিন্ত সে।
ঝড় জলোচ্ছাসের আতংকে কম্পিত হতে হতে তীরে আশ্রয় তার।
শেষ দিনগুলো কাটাতে চায় তার ভালবাসার জনের কাছে
আমাকে গ্রহন করো হে বালিয়াড়ি, আমি বিলীন হতে চাই তোমার মাঝে।
এই সমর্পণ অন্য কেউ কি বুঝে?

৬৮৫জন ৬৮৪জন
0 Shares

৪৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ