চুটকুলে আলাপ -৩

রোকসানা খন্দকার রুকু ৬ জুন ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:৩৮:২৭পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২ মন্তব্য

বন্ধু নির্বাচনে ধীর হন। প্রথম পরিচয়েই জান দিয়ে ফেলার মতো অবস্থা করে ফেললে তার সাথে বন্ধুত্বে যাবেন না। কারণ দ্রুত সবসময় ক্ষনস্থায়ী আর এরা আসলে সবার সাথেই জান দেয়। আসলে এরা চরম স্বার্থপর এবং নির্বাক মিত্র। যা ভীষন ক্ষতিকর। এরা না থাকার চেয়ে একা থাকুন বেটার।

যে বন্ধু বা আপনজন একবার বিশ্বাস ঘাতকতা করবে। তাকে দ্বিতীয়বার বিশ্বাস করতে যাবেন না। সে দ্বিতীয়বার আপনার জীবন নিয়েই পালাবে। কিংবা আপনি কিছুই করেননি তারপরও আপনাকে সে অবিশ্বাস করে। তাকে আর বিশ্বাস করাতে যাবেন না। অযথা পেইন বাড়বে।

আপনার আত্মীয় পরিজন, অতি আপনজন ও প্রয়োজন। আপনি তাদের বিপদে থেকেছেন কিন্তু আপনার বিপদে তারা একদিনও আসেনি। তাদের সঙ্গ ত্যাগ করুন। মনে রাখবেন, বেঁচে থাকতে বেশি মানুষ লাগে না। আর এমন মানুষ তো না-ই।

 

ফেসবুকে ছবি ও প্রফাইল মনপুত না হলে কিংবা না চিনলে ফেক আইডি হিসেবে তাকে ডিলিট করুন। আপনার সমস্ত ফেসবুকের ছবি অনলি মি করার পরও সে আপনার ছবি দিয়ে কুৎসা রটাচ্ছে। বুঝতে হবে, সে আপনার একসময় অনেক প্রিয় কেউ আত্নীয়, বন্ধু বা আপনজন।কোথাও তার জন্য আপনি কিছু করেননি বলে সে আপনার উপর ঝাল ঝারছে।

 

আপনি মেয়ে, কোন ছেলের বাবা আপনাকে দেখে হুমড়ি খেয়ে পড়লো বউ বানিয়েই ছাড়বে। অথচ আপনি নিজে অবাকিত হয়ে খোঁজেন আপনার নিজের মাঝে এমন কি আছে তার জন্য পাগল হতে হবে। নিজেকে দামি না ভেবে ব্যাংক ব্যালেন্স সামলে রাখুন!

 

আপনি বাবার একমাত্র উত্তরাধিকারী কিন্তু মোটা,কালো,বেটে? নিজের অযোগ্যতাকে সাথে নিয়ে যাকে আপনার ভালো লাগে তাকে প্রপোজ করুন। সে রিজেক্ট করলে আবার করুন। মন দিয়ে ভালোবাসুন। রিজেক্ট করার পর সে যদি আপনাকে গ্রহন করে তাহলে আপনি সারাজীবনের জন্য তার অতি প্রিয় হবেন। সে আপনাকে ছেড়ে যাবে না। বরং রিজেক্ট করার অপরাধবোধে ভুগে আপনাকে ডুবে ডুবে ভালোবাসবে।

 

আপনি মেয়ের বাবা- মা? বিয়ের সময় ছেলের কোন ডিমান্ড নাই এমন ছেলেদের লাত্থি মারুন। এও রিকশা অলার মতো। সারাবছর ফুটিক জল পাখি হয়ে আপনার থেকে চাইতেই থাকবে। এবং তার স্বার্থে আঘাত লাগলে সে সটকে পড়বে।

 

গরীব কিন্তু মেধাবী এদের সাথে  বিনিময় প্রথা/ যৌতুক দিয়ে মেয়ের বিয়ে দিবেন না। এরা টাকা ও শরীর বিয়ে করে। আপনার মেয়েকে কখনই সে ভালোবাসবে না। আপনার মেয়েকে রেখে কোন চুলবুলির ঠোঁটে চুম্মা দিবে। আপনার সাহায্যে পুষ্ট

হয়ে দেশের উর্ধ্বতন হয়ে, দেশের টাকা ও শরীর শুষে শুষে খাবে। যা বর্তমানে দেশে চলছে। জেনে রাখুন, গরীব- লোভীদের সাহায্য করে আপনিও দেশের ক্ষতি করছেন।

 

আপনার অতি প্রিয় বন্ধু পরোকীয়া করে। ঘর- বাহির দুটোই চালায়, তার সঙ্গও ত্যাগ করুন। লজ্জা ও ব্যক্তিত্বহীন মানুষের সঙ্গ কখনোই নেবেন না। নির্লজ্জ ও ব্যক্তিত্বহীন মানুষ আপনার লজ্জা ও ব্যক্তিত্বও কেড়ে নিবে।

 

ভিক্ষুককে চট করে ভিক্ষা দিবেন না। কারন আপনি তাতে ভিক্ষাবৃত্তি বাড়াতে সাহায্য করছেন। কৃপন ও হঠাৎ বড়লোক হয়ে যাওয়া মানুষের সাথে মিশবেন না। এদের কাছে টাকাই সব।

 

– এই রিকশা মামা যাবেন? ভাড়া কতো?

– আরে, দিয়েন তো, ভাড়া নিয়া বাজবে না।

আপনি এই রিকশায় উঠবেন না। কারণ বাসা বা অফিসের সামনে যেখানে আপনার প্রেস্টিজ নষ্ট হবে, সেখানে নিয়ে গিয়ে সে ভাড়া নিয়েই ক্যাচাল করবে। সে চিৎকার করলে সমস্যা নাই, লোকে আপনাকেই ছি! ছি! জানাবে।

ছবি- নেট থেকে।

২৭৫জন ১৯২জন
0 Shares

২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ